করোনামুক্তির প্রার্থনায় উদযাপিত হচ্ছে বড়দিন

বায়েজিদ  ডেস্ক :   সারা বিশ্বের মানুষের মঙ্গল এবং দেশ ও জাতির শান্তির প্রার্থনার মধ্য দিয়ে উদযাপিত হচ্ছে খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বড়দিন। একই সঙ্গে মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে বিশ্বকে মুক্ত করারও প্রার্থনা চলছে।

শুক্রবার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল থেকেই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার গির্জা ও উপাসনায়ে প্রার্থনার মধ্য দিয়ে ধর্মীয় আচার শুরু হয়েছে।

সকাল সাড়ে ৮টায় কাকরাইলের সেন্ট ম্যারিস ক্যাথেড্রাল চার্চে প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। যাকে খ্রিস্টযজ্ঞ বলে পালন করেন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা। অন্যবার একাধিক প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হলেও করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবার একটিই প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কাকরাইলের সেন্ট ম্যারিস ক্যাথেড্রাল চার্চের ফাদার বিমল ফ্রান্সিস গোমেজ  বলেন, যিশুখ্রিস্ট এ পৃথিবীতে এসেছিলেন শান্তির বারতা নিয়ে। আমাদের প্রার্থনা ছিল সারা বিশ্বের মানুষের মঙ্গল এবং দেশ ও জাতির শান্তি কামনা। একই সঙ্গে সমগ্র বিশ্ব যেন করোনামুক্ত হয় সেটিও আমাদের প্রার্থনা।

একই সঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী সবার আত্মার শান্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে বড়দিন উৎসব উপলক্ষে কাকরাইলের সেন্ট ম্যারিস ক্যাথেড্রাল চার্চসহ বিভিন্ন গির্জা সাজানো হয়েছে আলোকসজ্জাসহ রঙিন সাজে। সাজানো হয়েছে ক্রিসমাস-ট্রি।

কাকরাইল গির্জায় প্রবেশ করার পরই দেখা যায় সুসজ্জিত প্রতীকী গোয়ালঘর। খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, যিশুর জন্ম হয়েছিলো গোয়ালঘরে। যিশুর জন্মের সেই স্মৃতিকে স্মরণ করে বড়দিনে গির্জায় প্রতীকী গোয়ালঘর তৈরি করা হয়।

সম্পাদনা-এসপিটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*